ঘরে বসেই লাইভ ভিডিওতে
প্রতি মাসে মাত্র ৮০০/- টাকায়

MCQ পরীক্ষার প্রস্তুতি!

ভর্তি হতে কল করুন : 01712-908561

Penal Code Lecture 008 [Sec. 120a-120b]

দণ্ডবিধির ৫ক অধ্যায় হিসেবে বিন্যস্ত এই অধ্যায়ে মাত্র দুইটি ধারা; ১২০ক এবং ১২০খ। এখানে ‘অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র’ শিরোনামে আলোচনা আছে। দণ্ডবিধির যৌথ দায় সংক্রান্ত ধারা যেমন, ৩৪-৩৮ অথবা ১০৭-১২০ ধারাসমূহের মতোই এটিও একটি যৌথ দায় সংক্রান্ত ধারণা। দুইটি ধারাই মনোযোগের সাথে পড়ে রাখা প্রয়োজন এমসিকিউ পরীক্ষার জন্য।

Penal Code : Lecture 008

Criminal Conspiracy : অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র

ম্যাপিং : আমাদের এবারের বিষয় অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র বা Criminal Conspiracy। এটা দণ্ডবিধির ৫ম অধ্যায় যা মাত্র ২ টি ধারা নিয়ে গঠিত। উল্লিখিত টপিকটিই এটার শিরোনাম। ধারা দুইটি হলো – ১২০ ক ধারা এবং ১২০ খ ধারা। এই টপিকটার সাথে খানিকটা মিল, পার্থক্য এবং একইসাথে কনফিউশনও আছে অনেকের Joint liability বা যৌথ দায়বদ্ধতা টপিকের সাথে। বারের পরীক্ষার জন্য এটার তুলনামূলক আলোচনা খুব ডিটেইল বোঝার দরকার নেই আপাতত।

এই টপিকের ওপর কোনো প্রশ্ন না বার কাউন্সিল, না জুডিসিয়ারি কোনোটাতেই আসেনি! তবুও আমাদের আলোচনা চলবে। আপনারাও পড়বেন আশা করি।

মূল আলোচনা
আগেই ধারাটি দেখে নেই।

“ধারা ১২০ ক : অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের সংজ্ঞা : দুই বা ততোধিক ব্যক্তি যদি-
(১) একটি বেআইনী কাজ [an illegal act]; অথবা
(২) যে কার্যটি বেআইনী নয় এমন একটি কার্য বেআইনী উপায়ে করার জন্য কিংবা কার্যটি যাতে সম্পন্ন হয় তজ্জন্য সম্মত বা একমত হয়, তবে অনুরূপ সম্মতি বা ঐকমত্যকে অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র বলে,

তবে শর্ত থাকে যে, একটি অপরাধ সংঘটনের জন্য উপনীত সম্মতি ছাড়াই অপর কোনরূপ সম্মতি অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র বলে পরিগণিত হবে না, যদি না উপযুক্ত সম্মতি অনুযায়ী সম্মতিটির সাথে জড়িত এক বা একাধিক ব্যক্তি দ্বারা সম্মতিটির বহির্ভূত কোন কার্য সম্পন্ন হয়।

ব্যাখ্যা : বেআইনী কাজটিই অনুরূপ সম্মতি বা ঐকমত্যের চূড়ান্ত লক্ষ্য অথবা তা শুধু উদ্দীষ্ট লক্ষ্যের আনুষঙ্গিকমাত্র, তাতে কিছু যায় আসে না।

‘দুই বা ততোধিক লোক’ এই বর্ণনাকে সহজভাবে এভাবে লেখা যায় – ‘একাধিক লোক’। এই একাধিক লোক, একটি কাজ তা বৈধই হোক আর অবৈধই হোক; যখন কোনো বেআইনী উপায়ে ঐ কাজ করার জন্য পরস্পর সম্মত হন (এই সম্মতি একটি চুক্তির সমতুল্য), তখনই তাকে অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র বলা হয়।

এই ধারা নিয়ে আর কোনো ব্যাখ্যার দরকার নেই। তবে বাজারের বেশিরভাগ পাঠ্য বইয়ে ও গাইড বইয়ে ভুলভাবে একটি বিষয় উপস্থাপন করা আছে। সেটা হলো ১২০ ক ধারার উপাদান আকারে বলা হচ্ছে – ষড়যন্ত্রের অনুসরণে কোনো কাজ নাকি করতে হবে! কিন্তু আসলে ষড়যন্ত্র করাটাই একটা অপরাধষড়যন্ত্র বাস্তবায়ন না হলেও শুধুমাত্র ‘ষড়যন্ত্র’ করার জন্যই যেকোনো একাধিক লোক বা ব্যক্তি এই ধারার অধীনে অপরাধী হবেন। আপনাদের নিশ্চয় মনে আছে যৌথ দায়বদ্ধতা সম্পর্কে? সেখানকার অন্যতম উপাদান হলো – যৌথ দায় এর ক্ষেত্রে অবশ্যই অপরাধটি সংঘটিত হতে হবে [৩৪ ধারা মোতাবেক]। আমরা ১২০ ক ও ৩৪ ধারা সম্পর্কে উচ্চ আদালতের দুইটি সিদ্ধান্ত পড়ে নেই। কাজে দেবে আশা করি।

দণ্ডবিধির ১২০ ক ধারার মূল উপাদান হলো সম্মতি, পক্ষান্তরে ৩৪ ধারার মূল বৈশিষ্ট্য হলো একই ধরনের অভিপ্রায় পোষণ করে অপরাধ অনুষ্ঠান করা। [ 7 DLR 75; Yakub Vs. Somrat]

আরেকটি সিদ্ধান্ত পড়ুন।

অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের আসল কথা হলো অবৈধ কাজ করার জন্য অথবা কোনো বৈধ কাজ অবৈধ পন্থায় করার জন্য একাধিক লোকের সম্মতি। এরূপ সম্মতি প্রমাণিত হলে, তা অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র বলে গণ্য হবে, ঐ ষড়যন্ত্র মোতাবেক অপরাধ অনুষ্ঠিত না হলেও তা দণ্ডনীয়। [PLD 1957 (SC) 68 ]

কথা পরিষ্কার? কথা পরিষ্কার হয়তো হলো। তবু কিছু কথা আরো আছে। উপরোক্ত দুইটি কেইস ল’ দেখে কিছু কি আঁচ করতে পারেন? নিচের প্যারাটি পড়েন।

অপরাধে সহায়তাকারী সম্পর্কে আমরা পড়ে এসেছি ১০৭ ধারা থেকে ১২০ ধারা পর্যন্ত। সেখানে অপরাধে সহায়তা করা বা প্ররোচনা দেয়াই একটি অপরাধ। মূল অপরাধটি সংঘটিত না হলেও অপরাধে প্ররোচনা দেয়াই একটি অপরাধ। উদাহরণ হিসেবে দেয়া কেইস ল’ দুইটি ভালো করে পড়লেও দেখতে পাবেন যে, অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র করাটাও একটি অপরাধ; এর জন্য অপরাধটি সংঘটিত না হলেও চলে। অর্থাৎ, ষড়যন্ত্রের সম্মতি প্রমাণ হলেই সেই অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের দোষে দোষী হিসেবে সাব্যস্ত করা যাবে!

ফলে, ৩৪ ধারার সাধারণ অভিপ্রায় [common intention], ১০৭ থেকে ১০৯ ধারার অপরাধে সহায়তা [abetment] এবং বর্তমান ১২০ ক ধারার অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র [criminal conspiracy] – এই তিনের মধ্যে সম্পর্ক, দুরত্ব বা পার্থক্য ইত্যাদি কিন্তু বিবেচনায় রাখবেন। ঝামেলা লাগলেও এই বিষয়টি এখুনি একবার ভালোভাবে সেরে নেয়া ভালো। কাজে দেবে ভীষণ। বেশি চাপ লাগলে এখন স্কিপ করে দ্বিতীয়বার যখন পুরো কোর্স রিভিশন দেবেন তখনও দেখতে পারেন।

এবার ১২০ খ ধারা।

একটা ব্যাপার বোঝেন ভালো করে। ধরুন, আমি আর আপনি মিলে চুরি করার ষড়যন্ত্র করলাম। আর অন্য আরো একাধিক লোক মিলে কোথাও বোমা মেরে মানুষ মারার ষড়যন্ত্র করলো। দুটোই কিন্তু ষড়যন্ত্র। এই দুই ষড়যন্ত্র কি একই মেরিটের? চুরি করার ষড়যন্ত্র আর মানুষ মারার ষড়যন্ত্র কি একই বিষয়? না। কি বিষয়ক ষড়যন্ত্রে কি ধরনের শাস্তি হবে সেই কথাটাই বলা আছে মূলত ১২০ খ ধারায়। মানে, কোনো অপরাধের শাস্তির ধরণই হলো উক্ত অপরাধ করার ষড়যন্ত্রের শাস্তি নির্ধারণের মাণদণ্ড বা মাপকাঠি। ধারাটি এবার পড়ে নেন।

“ধারা ১২০ খ : অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের সাজা : (১) কোন ব্যক্তি যদি মৃত্যুদণ্ড, যাবজ্জীবন কারাদণ্ড অথবা দুই বৎসর বা তদূর্ধ্ব মেয়াদের সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডনীয় অপরাধ সংঘটনের জন্য পরিকল্পিত অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রে শরীক হয় এবং যদি এই বিধিতে অনুরূপ ষড়যন্ত্রের সাজা দানের জন্য কোন স্পষ্ট বিধান না থেকে থাকে, তবে সেই ব্যক্তি অনুরূপ অপরাধ সংঘটনে সহায়তা করলে তাকে যেভাবে সাজা প্রদান করা হতো এই ক্ষেত্রেও তাকে সেভাবে সাজাদান করা হবে

(২) কোন ব্যক্তি যদি উপযুক্ত দণ্ডসমূহের দণ্ডনীয় অপরাধ সংঘটনের জন্য পরিকল্পিত অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র ছাড়াই অপর কোনরূপ অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রে শরীক হয় তবে সেই ব্যক্তিকে অনধিক ছয় মাস পর্যন্ত যে কোন মেয়াদের সশ্রম বা বিনাশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা যাবে অথবা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করা যাবে অথবা উভয়বিধ দণ্ডেই দণ্ডিত করা যাবে।

অর্থাৎ যে সমস্ত অপরাধ দুই বছর বা তার অধিক বা যাবজ্জীবন বা মৃতুদণ্ডে দণ্ডনীয়, সেই সমস্ত অপরাধ করার জন্য যদি ষড়যন্ত্র করা হয়, সেই অপরাধে সহায়তাকারীর যে শাস্তি, সেই শাস্তিই উক্ত ষড়যন্ত্রকারীরা ভোগ করবে, এটাই সাধারণ নীতি। সহজভাবে কথাটা বললে এরকমই দাঁড়ায় – ২+ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডনীয় যেকোনো অপরাধের ক্ষেত্রে ষড়যন্ত্র প্রমাণ করা গেলে উক্ত মূল অপরাধের যেই শাস্তি নির্ধারিত আছে, সেই শাস্তিই ষড়যন্ত্রকারীর জন্যও প্রযোজ্য হবে! তবে আরো কথা আছে। যদি উক্ত অপরাধের ষড়যন্ত্রকারীদের শাস্তি সম্পর্কে স্পষ্ট উল্লেখ থাকে কোনো ধারা বা আইনে, তবে সেটাই প্রযোজ্য হবে বা অগ্রাধিকার পাবে। যদি উল্লেখ না থাকে তবে এই সাধারণ নীতিই কার্যকর হবে।

দুই বছর এর অধিক অপরাধের ক্ষেত্রে এই আলাপ। কিন্তু দুই বছরের কম দণ্ডে দণ্ডনীয় অপরাধ এর ষড়যন্ত্র করলে কি হবে? সেটাই ২ নং উপধারায় বলা আছে। সেখানে বলা হচ্ছে স্পষ্টভাবে – সেরূপ অপরাধের জন্য সর্বোচ্চ ৬ মাসের কারাদণ্ড দেয়া যাবে, তা সশ্রম বা বিনাশ্রম হতে পারে, সাথে জরিমানাও যুক্ত হতে পারে।



/7
78

4 minutes 12 seconds


Penal Code [120A-120B]

এখানে দণ্ডবিধির ১২০ক-১২০খ ধারাসমূহ নিয়ে এমসিকিউ টেস্ট আছে। সংশ্লিষ্ট ধারাগুলো পড়ে নিয়ে এটি অনুশীলন করুন।

এখানে আপনার নাম ও ফোন নাম্বার লিখুন। ইমেইলটি লেখা বাধ্যতামূলক নয়; তবে, ইমেইল এড্রেস দিলে আপনার ইমেইলে বিস্তারিত ফলাফল চলে যাবে।

1 / 7

সর্বনিম্ন কত জন সদস্য থাকতে হয় একটি অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের ক্ষেত্রে?

2 / 7

যে ব্যক্তি দুই বছরের কম দণ্ডে দণ্ডনীয় অপরাধের অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রে অংশগ্রহণ করে তার কী শাস্তি হতে পারে?

3 / 7

দণ্ডবিধির কত ধারায় অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের শাস্তির বিষয়ে বর্ণনা দেওয়া হয়েছে?

4 / 7

যে ব্যক্তি ১ বছরের কম দণ্ডে দণ্ডনীয় অপরাধের অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রে অংশগ্রহণ করে তার কী শাস্তি হতে পারে?

5 / 7

কোনো ব্যক্তি যদি ১৪ বছর কারাদণ্ডে দণ্ডনীয় কোনো অপরাধ সংঘটনের জন্য কোনো অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রে অংশগ্রহণ করে এবং উক্ত অপরাধের ক্ষেত্রে ষড়যন্ত্রের শাস্তি উল্লেখ না থাকে, তাহলে উক্ত অপরাধের জন্য উক্ত ব্যক্তি দায়ী হবে-

6 / 7

কোনো ব্যক্তি যদি ২ বছর কারাদণ্ডে দণ্ডনীয় কোনো অপরাধ সংঘটনের জন্য কোনো অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রে অংশগ্রহণ করে এবং উক্ত অপরাধের ক্ষেত্রে ষড়যন্ত্রের শাস্তি উল্লেখ না থাকে, তাহলে উক্ত অপরাধের জন্য উক্ত ব্যক্তি দায়ী হবে-

7 / 7

দণ্ডবিধির কত ধারায় অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের সংজ্ঞা দেওয়া হয়েছে?

Your score is

0%



বিগত এমসিকিউ সাফল্য

Registered [2017 & 2020 MCQ]

Passed Students [2017 & 2020 MCQ]

Registered [MCQ Exam of 2021]